পাকিস্তানকে ‘তৈরি থাকা’র বার্তা ইমরানের, ‘সুযোগ বুঝে জায়গা মতো জবাব দেওয়া হবে’! - DeskO [Desk Opinion]

Breaking

Tuesday, February 26, 2019

পাকিস্তানকে ‘তৈরি থাকা’র বার্তা ইমরানের, ‘সুযোগ বুঝে জায়গা মতো জবাব দেওয়া হবে’!

যে কোনও পরিস্থিতির জন্য তৈরি থাকুন, পাকিস্তানের সশস্ত্রবাহিনী এবং জনসাধারণকে এমন বার্তাই দিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। মঙ্গলবার ভোররাতের সার্জিকাল স্ট্রাইকের পর এই মুহূর্তে পাকিস্তানে রীতিমতো জরুরি পরিস্থিতিতে প্রশাসনিক ও সেনা বৈঠক চলছে। ভারতীয় বাসুয়েনার আগাম অসামরিক সতর্কতামূলক পদক্ষেপের প্রেক্ষিতেই ইমরান খানের এই জরুরি বার্তা। এদিন বালাকোটে জইশ-ই-মহম্মদের ঘাঁটিতে বিমান হানা চালায় ভারত। পাকিস্তানের শীর্ষ নিরাপত্তা সংস্থা জানিয়েছে, ‘অযাচিতভাবে ভারত আগ্রাসন দেখিয়েছে’, ফলে সুযোগ বুঝে এবং জায়গা মতো এর জবাব দেওয়া হবে।

জানা যাচ্ছে, পাকিস্তানে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনারকে এদিন তলব করেছে ইসলামাবাদ। সে দেশের ‘আঞ্চলিক সার্বভৌমত্ব’ ক্ষুণ্ণ করা হয়েছে বলে ধিক্কার জানানো হয়েছে পাকিস্তানের তরফে।

এদিকে, ‘‘আত্মরক্ষার্থে পাকিস্তানেরও জবাব দেওয়ার অধিকার আছে’’, এ কথা বলে ভারতকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে পাকিস্তান। মঙ্গলবার ভোররাতে বালাকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার সার্জিক্যাল স্ট্রাইক প্রসঙ্গে হুঙ্কার দিলেন পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি। এদিন কুরেশি বলেন,‘‘আজ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে আগ্রাসন দেখিয়েছে ভারত। প্রথমত, নিয়ন্ত্রণরেখা লঙ্ঘন করা হয়েছে। আত্মরক্ষার্থে যোগ্য জবাব দেওয়ার অধিকার রয়েছে পাকিস্তানের।’’

‘রেডিও পাকিস্তান’ সূত্রে জানা যাচ্ছে, কুরেশি বলেন, ‘‘ভারতের এই পদক্ষেপে আমাদের চিন্তার কিছু নেই। কারণ, এর জবাব দিতে দেশ সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত।’’ একইসঙ্গে কুরেশি বলেন, পাকিস্তান ‘শান্তিপ্রিয় দেশ’।
 
এদিন, বালাকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার হানার পরই জরুরি ভিত্তিতে বৈঠক করেন পাক বিদেশমন্ত্রী। অন্যদিকে, সামগ্রিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে জরুরি বৈঠক ডেকেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানও। মনে করা হচ্ছে, এই বৈঠক সেরেই সাংবাদিক বৈঠকে বসবেন ইমরান।এদিকে, মঙ্গলবার সাংবাদিক বৈঠক করে ভারতীয় বিদেশ সচিব বিজয় গোখলে জানান, ‘‘বালাকোটে জইশের সবথেকে বড় জঙ্গি ঘাঁটিটি ধ্বংস করেছে ভারত। জইশ-ই-মহম্মদের বহু জঙ্গি, সিনিয়র কমান্ডার, প্রশিক্ষকরা মারা গিয়েছে।’’
 
উল্লেখ্য, মঙ্গলবার ভোররাতে একাধিক জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করছে ভারতীয় বায়ুসেনা। ভারতীয় বায়ুসেনার সূত্রকে উল্লেখ করে সংবাদ সংস্থা এএনআই জানিয়েছে, এদিন ভোর সাড়ে তিনটে নাগাদ ভারতীয় বায়ুসেনার মিরাজ ২০০০ বিমান এই অভিযান চালায়। এক হাজার কেজি বোমা নিক্ষেপ করে জঙ্গি ঘাঁটিগুলি ধ্বংস করা হয়েছে বলেও জানানো হয়েছে।

Pages