মাসুদ আজহার এবারও কি চিনের সৌজন্যে বেঁচে যেতে চলেছে? - DeskO [Desk Opinion]

Breaking

Wednesday, March 13, 2019

মাসুদ আজহার এবারও কি চিনের সৌজন্যে বেঁচে যেতে চলেছে?

জৈশ -এ মহম্মদ প্রধান মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী ঘোষণার পথে ফের একবার কাঁটা হতে পারে চিন। বুধবার তেমনটাই ইঙ্গিত দিয়েছেন বেজিং। তারা বলেছে, “সমস্যা মিটতে পারে সকলের পক্ষে গ্রহণযোগ্য সমাধানের মাধ্যমে“। উল্লেখ্য নিরাপত্তা পরিষদে মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী ঘোষণা করার ব্যাপারে কোনও দেশের আপত্তি জানানোর সময়সীমা শেষ হচ্ছে শীঘ্রই।

সংবাদসংস্থা পিটিআই চিনের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র লু কাংকে উদ্ধৃত করেছে। “আমি ফের বলছি, চিন  নিরাপত্তা পরিষদের ১২৬৭ কমিটিতে তাদের দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করে যাবে।“

নিরাপত্তা পরিষদে আপত্তি জানানোর সময় শেষ হচ্ছে নিউ ইয়র্কের সময় অনুযায়ী বুধবার বেলা ৩টেয়, অর্থাৎ ভারতীয় সময়ানুসারে বুধবার রাত ১২ ৩০-এ।

মাসুদ আজহারকে নিষিদ্ধ করার জন্য গত ২৭ ফেব্রুয়ারি নিরাপত্তা পরিষদের ১২৬৭ আল কায়দা স্যাংশন কমিটিতে প্রস্তাব এনেছিল ফ্রান্স, ব্রিটেন ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

আন্তর্জাতিক জঙ্গি হিসেবে আজহারের নাম যদি তালিকায় ওঠে তাহলে তার যাতায়াত এবং তার সম্পত্তি দুইই নিষিদ্ধ হবে। এর ফলে নিজের কার্যকলাপ চালিয়ে যেতে সমস্যার মুখে পড়বে সে।

গত ১০ বছর ধরে চিন একাই আজহারের নাম আন্তর্জাতিক জঙ্গি তালিকায় তুলতে দেয়নি।
 
সূত্র মারফৎ জানা গেছে, পুলওয়ামা হামলা যে জৈশ ই চালিয়েছিল ডসিয়েরে তা স্পষ্ট প্রমাণিত। জৈশ এ মহম্মদ পাকিস্তান ভিত্তিক সংগঠন এবং আজহার তার নেতা। সূত্রটি জানিয়েছে, “জৈশ যেহেতু ইতিমধ্যেই তালিকাভুক্ত সংগঠন ফলে তার নেতারও ওই তালিকাতে নাম থাকা উচিত।“

জৈশ এ মহম্মদ ভারতে বেশ কিছু হামলা চালিয়েছে। এর মধ্যে সংসদ হামলা যেমন রয়েছে, রয়েছে পাঠানকোট বিমান ঘাঁটিতে হামলা. জম্মু এবং উরি সেনা ছাউনিতে হামলা। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় আত্মঘাতী হানায় ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ানের মৃত্যুর ঘটনার পিছনেও জৈশের হাত রয়েছে।

Pages